সাত হাজার টন খাদ্যশস্যসহ রুশ জাহাজ আটক করেছে তুরস্ক

জুলাই ০৬ ২০২২, ০৪:৪১

সাত হাজার টন খাদ্যশস্যবাহী আটক রুশ পতাকাবাহী জাহাজটির ব্যাপারে যেকোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে পুরো বিষয়টি ভালো করে পর্যালোচনা করতে তুরস্কের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ।

মঙ্গলবার মস্কো সফররত ভেনিজুয়েলার পররাষ্ট্রমন্ত্রী কার্লোস রাফায়েল ফারিয়ার সঙ্গে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলন শেষে এ আহ্বান জানান তিনি।

ল্যাভরভ বলেন, জাহাজটি কাজাখস্তানে যাচ্ছিল। তুরস্ক ও এস্তোনিয়ার মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তিতে এই জাহাজের খাদ্যশস্যের বিবরণ রয়েছে। আমাদেরকে এ বিষয়টি বিশেষভাবে পর্যালোচনা করে দেখতে হবে।

তিনি বলেন, তুরস্কের উচিৎ এই জাহাজের বিষয়ে তদন্ত করা এবং এতে থাকা খাদ্যশস্যের ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য শস্যের নমুনা নেওয়া, যাতে এই জাতীয় শস্য কোথায় উৎপাদন হয় সে সম্পর্কে সঠিক তথ্য নিশ্চিত হওয়া যায়।

তুরস্কের পতাকাবাহী একটি জাহাজ সাত হাজার টন খাদ্যশস্য নিয়ে গত বৃহস্পতিবার কৃষ্ণসাগর তীরবর্তী বারদিয়ানস্ক বন্দর ছেড়ে যায়।

রবিবার তুরস্ক ইউক্রেনের অনুরোধে জাহাজটিকে আটক করে। কিয়েভ দাবি করছে, ওই জাহাজে করে ইউক্রেনের লুট করা খাদ্যশস্য বিক্রি করতে যাচ্ছিল রাশিয়া।

রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ল্যাভরভ আরও বলেন, রাশিয়ার শস্যবাহী জাহাজ নিয়ে যে কৃত্রিম সংকট তৈরি করা হয়েছে তা অগ্রহণযোগ্য। পশ্চিমাদের আরোপিত নিষেধাজ্ঞা ছাড়া আমাদের খাদ্যশস্য ও রাসায়নিক সার রফতানির পথে কোনো বাধা নেই।

এর আগে রুশ প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ সোমবার দাবি করেছিলেন, তুরস্কে তার দেশের জাহাজ আটক সম্পর্কে মস্কো কোনও তথ্য জানে না।

Share Button